মোবাইল ফোনের ইতিহাসের আসল রহস্য

  



মোবাইল ফোনের ইতিহাসের আসল রহস্য


মোবাইল ফোন:-  

বিশ্বের এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় কথা বলার মাধ্যম হলো মোবাইল ফোন। আর এই মোবাইল ফোন ৪১ বছর ধরে  যুগের পর যুগ তাল মিলিয়ে আসছে। মোবাইল ছাড়া এক মুহূর্ত থাকা যায়না। এক কথায় বলা যায় মোবাইল ফোন মানুষের একটি পার্টস এর মতন। মোবাইল ছাড়া মানুষ অচল।

মোবাইল ফোনের আবিষ্কার:-  

১৭৭৩ সালের ৩ এপ্রিল ডক্টর মার্টিন কুপার এবং জন ফ্রান্সিস মিচেলকে প্রথম উদ্ভাবকের মর্যাদা দেওয়া থাকে। এবং কি এই সালে প্রথম পরীক্ষা করা হয়েছিল যে কিভাবে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথা বলা হয়, তারা সফল হয়েছিল। আস্তে আস্তে মোবাইল ফোনের বিস্তার গুলো দিন দিন বেড়েই চলেছে। যখন তারা সফল হয়েছিল, ১৯৯৩ সালের প্রথম সফলভাবে একটি ১ কেজি ওজনের হাতে ধরা মোবাইল ফোনে করতে সক্ষম হয়েছিল।যুগের সাথে তাল মিলাতে মিলাতে মোবাইল ফোনের ব্যবহৃত দিন দিন বেড়েই চলেছে।ঔ ১৮৮৩ সালে  মোবাইল ফোনটির নাম ছিল, মোটোরোলা ডায়না টিএসি ৮০০০এক্স (DynaTAC 8000x)।

১৯৯০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সারা বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় অনেক মিলিয়ন এর মধ্যেই হয়ে যায়। সারা বিশ্বব্যাপী এখন  ৮৩ পার্সেন্ট মানুষের হাতে হাতে মোবাইল দেখতে পাওয়া যায়। গত ২০১২ থেকে ২০১৪ মধ্যে ইউনিয়ন ভিত্তিক তথ্য জরিপে দেখা যায়।  ৬০০ কোটিরও মানুষ বেশি মোবাইল ব্যবহার করছে। ওই সময় পৃথিবীর মোট জনসংখ্যা ছিল ৭০০ কোটি  মানুষ। যুক্তরাজ্যের টেলিকমিউনিকেশন তথ্যের মাধ্যমে জানিয়েছে যে ব্যবসার ক্ষেত্রে মোবাইল ফোন দিন দিন চার শতকের মধ্য দিয়ে পার হয়ে যাচ্ছে।০ এর দশকে ব্যবহৃত বার স্টাইলের কোয়ালকম কিউসিপি-২৭০০ (QCP-2700) মোবাইল ফোন । ভবিষ্যতে এবং আগামী প্রজন্মের মানুষগুলোই মোবাইল ফোন সম্পর্কে অনেক ভালো কেন ধারণা করতে পারবে এবং নতুন নতুন প্রযুক্তি বিজ্ঞান দেখতে পাবে। আমরা বলতেপারি মার্টিন কুপারকে মোবাইল ফোনের জনক বলা হয়।

মোবাইল ফোনের আকার-আকৃতি ও বিবরণ:-

মোবাইলের প্রথমদিকে মোবাইলের আকৃতিটি তেমন ভালো ছিল না ওজনে অনেক ভারী ছিল। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে, বিশ্বকে উন্নত দিকে নিয়ে যেতে, এখন অনেক সুন্দর সুন্দর ডিজাইনের মোবাইল ফোন বাজারে বের হচ্ছে।  এই ফোন গুলো এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া যায়। ফোনগুলো খুবই দেখতে সুন্দর লাগে। এবং কি বিভিন্ন রকমের ভাবে মোবাইল টি যেখানে সেখানে রেখে বহন করা যায়।

মোবাইলের উপকার:-

মোবাইল ফোনের উপকার নিয়ে আর কি বলব। তবুও বলছি মোবাইল ফোন আমাদের কাছে না থাকলে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তাম। যেমন কোনো সংবাদ পৌঁছাতে গেলে। হেঁটে পেয়ে সংবাদ পৌঁছাতে  হত । যা এখন নিমিষের মাধ্যমেই পারা যায় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আমরা গান শুনতে পারি, ভিডিও দেখতে পারি, ব্লুটুথ এর মাধ্যমে ছবি পার করতে পারি, ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিশ্বের সকল তথ্য দেখতে পারে ইত্যাদি। 

Thank You


Post a Comment

Post a Comment (0)

Previous Post Next Post

Recent Posts

Facebook